লুঙ্গি গেঞ্জি পরচুলে কৃষকের ছদ্মবেশ আসামি ধরলেন, নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট!

জেলা প্রতিনিধি | প্রকাশিত : ১৮ এপ্রিল ২০২০ , ২:৫৯ অপরাহ্ণ

করোনা ভাইরাসের সংক্রমন রোধে সামাজিক দুরত্ব বজায় রাখার সরকার ঘোষিত নির্দেশনা অমান্ন করে ফরিদপুরের চরভদ্রাসনে জেলে নৌকায় যাত্রী পারাপারের সাথে জড়িত থাকার অপরাধে এক ব্যক্তিকে দুই মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। শুক্রবার বিকেলে এ আদালত পরিচালনা করেন সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ইমদাদুল হক তালুকদার।

ভ্রাম্যমাণ আদালত সূত্রে জানা গেছে, করোনার কারণে সরকারি নির্দেশে চরভদ্রাসনের গোপালপুর-মৈনট ফেরিঘাটের যাত্রী পারাপার বন্ধ ঘোষণা করা হয়। কিন্তু সরকারি নির্দেশনা না মেনে প্রতিদিন জেলে নৌকায় করে যাত্রী পারাপার করছে এমন অভিযোগ ওঠে। এর সাথে চরঝাউকান্দা ইউনিয়নের গোপালপুর গ্রামের মুকুল সিকদারের ছেলে রফিক সিকদার (৪০) জড়িত থাকার কথা জানা যায়।

আরো পড়ুন

প্রশাসন একাধিকবার অভিযান চালালেও প্রতিবারই কৌশলে পালিয়ে যায় সে। রফিককে ধরতে কৌশল বদল করেন ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচারক। কৃষকের ছদ্মবেশ ধারণ করে লুঙ্গি-গামছা ও মাথায় পরচুলা পরে শুক্রবার বিকেলে কাজী বাড়ী ঘাটে বাদাম খেতে কাজ করতে যান নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ইমদাদুল হক তালুকদার। তার সহযোগীরাও ছদ্ববেশ ধারণ করে একই সাথে কাজ করতে থাকেন।

বিকেল ৪টার দিকে একটি জেলে নৌকায় যাত্রী নিয়ে গোপালপুর ঘাটে না থেমে কাজী বাড়ী ঘাটের কাছে গিয়ে যাত্রী নামায়। এ সময় রফিক নৌকা থেকে টাকা তুলতে গেলে ছদ্ববেশ ধারণ করা নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট হাতেনাতে তাকে ধরে ফেলেন।

দেশজুড়ে
১৮ এপ্রিল ২০২০