নড়াইলে অভিযুক্তদের বিচারের দাবিতে লাশ কাধে নিয়ে ঝাড়ু মিছিল

নড়াইল অফিস | প্রকাশিত : ১১ জুন ২০২০ , ১০:১৯ অপরাহ্ণ

নড়াইলের লোহাগড়া উপজেলার গন্ডবগ্রামে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষের হামলায় চাচা-ভাতিজাসহ ৩জন নিহতের ঘটনার মুলহোতা সুলতান মাহমুদ বিপ্লবের ফাঁসিসহ দোষীদের গ্রেফতার ও বিচারের দাবিতে ঝাড়ু– মিছিল ও মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বৃহস্পতিবার বেলা ১২ টার দিকে গন্ডব এলাকাবাসীর আয়োজনে কয়েকশত নারী -পুরুষ লাশ ঘাড়ে করে সদর হাসপাতাল চত্বরে মানববন্ধন শেষে মিছিল করে।

পরে আদালত চত্বরে এক বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। সেখানে বক্তব্য রাখেন কাশিপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো. মতিয়ার রহমান এবং মুক্তিযোদ্ধা গোলাম মোস্তফা ও আব্দুল আলিম। বক্তারা এ ঘটনার জন্য নড়াইল জেলা পরিষদ সদস্য সুলতান মাহমুদ বিপ্লবসহ দোষীদের গ্রেফতার ও ফাঁসির দাবি করেন। এদিকে নিহত তিনজনের পক্ষের লোকজন এ ঘটনার জন্য বিপ্লবের চাচা পুলিশের এক ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাকে দায়ী করে তার বিরুদ্ধে ব্যানার নিয়ে ওই পুলিশ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে বিভিন্ন প্রকার শ্লোগান ও বক্তব্য দেয়। আদালত চত্বরে বিক্ষোভ সমাবেশের সময় সবাইকে শান্ত এবং শৃঙ্খলা বজায় রাখার অনুরোধ করে বক্তব্য রাখেন নড়াইলের এনডিসি জাহিদ হাসান।

আরো পড়ুন

পরে নিহত তিনজনের পক্ষের লোকজন নড়াইলের জেলা প্রশাসক আনজুমান আরার কাছে দোষীদের গ্রেফতার ও শাস্তির দাবি জানিয়ে স্মারকলিপি প্রদান করেন।

এ বিষয়ে নড়াইলের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জসিম উদ্দিন পিপিএম বলেন, ‘এ ঘটনায় এ পর্যন্ত ১২ জনকে আটক করা হয়েছে।’ এ ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত করে দোষী যেই হোক তাদের বিচারের আওতায় আনা হবে বলে তিনি জানান।

উল্লেখ্য এলাকায় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে নড়াইল জেলা পরিষদের সদস্য গন্ডবগ্রামের সুলতানুজ্জামান বিপ্লব গ্রুপের সাথে একই গ্রামের মিরাজ মোল্যা গ্রুপের মধ্যে র্দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছিলো। গত বুধবার দুপুর ২টার দিকে লোহাগড়া উপজেলার কাশিপুর ইউনিয়নের গন্ডবগ্রামে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলেন মিরাজ মোল্যার সমর্থক, মোক্তার মোল্যা (৫০), হাবিল মোল্যা (৪৫) ও রফিক মোল্যা (৪০)।

দেশজুড়ে
১১ জুন ২০২০