হতদরিদ্রদের জন্য বরাদ্দকৃত চাল কেলেঙ্কারিরতে আওয়ামী লীগের তিন নেতাকে অব্যাহতি।

জেলা প্রতিনিধি | প্রকাশিত : ১২ এপ্রিল ২০২০ , ১০:১৩ অপরাহ্ণ

বগুড়ায় হতদরিদ্রদের জন্য বরাদ্দকৃত চাল আত্মসাৎ ও কালোবাজারির সঙ্গে জড়িত থাকায় স্থানিয়ো আওয়ামী লীগের উপজেলা ও ইউনিয়ন পর্যায়ের তিন নেতাকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে এবং  তাঁদের দল থেকে বহিষ্কারের জন্য কেন্দ্রীয় কমিটির কাছে সুপারিশ করা হয়েছে।

আজ রোববার বিকেলে বগুড়া জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক রাগেবুল আহসান দলীয় এই সিদ্ধান্তের কথা নিশ্চিত করেন। হতদরিদ্রদের জন্য বরাদ্দ দেওয়া চাল কেলেঙ্কারির সঙ্গে জড়িয়ে দলের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন করায় তিন নেতাকে পদ–পদবি থেকে অব্যাহতির সিদ্ধান্ত হয়েছে বলেও জানান তিনি। অব্যাহতি দেওয়া নেতারা হলেন নন্দীগ্রাম উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আনিছুর রহমান, সারিয়াকান্দি উপজেলার কুতুবপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান গাজিউল হক এবং শিবগঞ্জ উপজেলার সৈয়দপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সাইফুল ইসলাম।

তবে নন্দীগ্রাম উপজেলা আওয়ামী লীগের এক সদস্য আনছার আলী এ ধরনের অপকর্মে ধরা পড়লেও তাঁর ক্ষেত্রে দল থেকে কোনো সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি। দলীয় সূত্র জানায়, গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে র‌্যবের একটি দল গতকাল শনিবার মধ্যরাতে নন্দীগ্রাম উপজেলার ভাগ শিমলা গ্রামে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আনিছুর রহমানের বাড়িতে তল্লাশি চালিয়ে খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির ৫৮ বস্তা চাল জব্দ করে। এসব চাল সরকারি বস্তা থেকে পাল্টিয়ে ফিডমিলের বস্তায় ভরে মজুত করা হয়েছিল।

আরো পড়ুন

পরে শিমলা বাজারে আনিছুর রহমানের মালিকানাধীন গুদামে তল্লাশি অভিযান চালিয়ে খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির আরও ১১০ বস্তা চাল জব্দ করা হয়। এ সময় সরকারি চাল কালোবাজারি ও বেআইনিভাবে মজুত করার দায়ে আনিছুর রহমান এবং তাঁর সহযোগী উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য আনছার আলীকে আটক করা হয়। এ ঘটনায় আজ রোববার আটক দুজন ছাড়াও পলাতক ডিলারকে আসামি করে র‍্যাবের একজন উপসহকারী পরিচালক বাদী হয়ে নন্দীগ্রাম থানায় মামলা করেন। বিশেষ ক্ষমতা আইনে মামলাটি করা হয়েছে।

গ্রেপ্তার নন্দীগ্রাম উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আনিছুর রহমান (বাঁয়ে) ও সদস্য আনছার আলীগ্রেপ্তার নন্দীগ্রাম উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আনিছুর রহমান (বাঁয়ে) ও সদস্য আনছার আলীদলীয় নেতারা আরও জানান, গতকাল বিকেলে শিবগঞ্জ থানা–পুলিশ উপজেলার ময়দানহাটা ইউনিয়নের গনকপাড়া গ্রামে অভিযান চালিয়ে হতদরিদ্রদের জন্য বরাদ্দ দেওয়া ৫০ হাজার ১০০ কেজি কালোবাজারির চালসহ মোস্তাফিজার রহমান নামের এক ব্যক্তিকে আটক করে। জিজ্ঞাসাবাদে মোস্তাফিজার পুলিশের কাছে স্বীকার করেন, সৈয়দপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সাইফুল ইসলাম এই সরকারি চাল কালোবাজারির সঙ্গে জড়িত। সাইফুলই এসব চাল মজুত করেছিলেন।

এ ঘটনায় সাইফুল ইসলামের বিরুদ্ধে পুলিশ বাদী হয়ে বিশেষ ক্ষমতা আইনে মামলা করে। তিনি পলাতক।

এ ছাড়া ৭ এপ্রিল সারিয়াকান্দি উপজেলায় খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির ২৮৮ বস্তা চাল কালোবাজারির দায়ে কুতুবপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি এবং ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান গাজিউল হককে ভ্রাম্যমাণ আদালত এক মাসের দণ্ড দিয়ে কারাগারে পাঠান। গাজিউল ওই ইউনিয়নের সরকারি ডিলারও।

সারিয়াকান্দি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) রাসেল মিয়া নিজেই অভিযান চালিয়ে ২৮৮ বস্তা চাল কালোবাজারির হাতেনাতে প্রমাণ পেয়ে ওই আওয়ামী লীগ নেতাকে এক মাসের দণ্ড দেন।

বাংলাদেশ
১২ এপ্রিল ২০২০